ডেঙ্গু মোকাবিলা নিয়ে যা বললেন ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘এডিস মশা এমন শক্তিশালী কিছু নয় যে আমরা প্রতিরোধ করতে পারব না। ডেঙ্গু মোকাবিলায় আমরা ইনশা আল্লাহ বিজয়ী হব।’

এসময় তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ভাষণে বিশ্বাস করে না। ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। 

আজ বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে ধানমন্ডি খালে সারা দেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধে দলের তিন দিনব্যাপী পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান কর্মসূচির উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, মশা মানুষের চেয়ে শক্তিশালী এমন কিছু নয় যে, এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করা যাবে না। বিজয়ী হওয়া যাবে না। ইনশাআল্লাহ আওয়ামী লীগ ডেঙ্গুর বিরুদ্ধেও বিজয়ী হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা ভয়ংকর ডেঙ্গু মশার বিস্তাররোধকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। শেখ হাসিনার নির্দেশ, পরিচ্ছন্ন ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ। আমরা সেটি সফল করার জন্য কাজ করছি। আমরা ভাষণে বিশ্বাস করি না। সারা বাংলাদেশের সব সিটি করপোরেশন, জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড পর্যায়ে তিন দিনব্যাপী এ কর্মসূচি চলবে।’

‘পরিষ্কার রাখি চারপাশের পরিবেশ, পরিছন্ন সমাজ-ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ’- এই স্লোগানে সারাদেশে একযোগে এই কর্মসূচি শুরু হয়েছে। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, চিকিৎসকদের আহ্বান জানাচ্ছি, ডেঙ্গু রোগের জন্য নামমাত্র ১শ’ টাকা নিয়ে চিকিৎসা করবেন। গরিব মানুষের পক্ষে ৫শ’ কিংবা ১ হাজার টাকা দিয়ে এ রোগের জন্য রক্ত পরীক্ষা করা সম্ভব নয়। তাই চিকিৎসকদের কাছে আহ্বান জানাবো মানবতা ও দেশের স্বার্থে নামমাত্র পয়সায় কিংবা বিনা পয়সায় ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিন। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেশের বাইরে থাকা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, কে আছে, কে নেই- এটা দেখার বিষয় নয়। কাজ হচ্ছে কি-না সেটাই দেখার বিষয়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা কঠিন লড়াইয়ে নেমেছি। এই লড়াইয়ে জিততে হবে। 

তিনি বলেন, ব্যক্তি বিশেষের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন না করে আসুন আমরা একযোগে কাজ করি। এটা অ্যাকশন প্রোগ্রাম। একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সবারই দায়িত্ব আছে। আসুন, আমরা একযোগে কাজ করি।

উদ্বোধনের পর নেতাকর্মীরা ধানমন্ডি লেকে ফগার মেশিন ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জিনিসপত্র নিয়ে পরিচ্ছন্ন অভিযান শুরু করেন। 

এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মতিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বি এম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, এ কে এম এনামুল হক শামীম, অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, দেলোয়ার হোসেন, প্রকৌশলী আব্দুস সবুর, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, এস এম কামাল হোসেন, মারুফা আক্তার পপি, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। 

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলরাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *