“মাদারীপুরের ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন যাচ্চু খান (নানা)”

নেত্রকোনা ব্যতিত দেশের ৬৩ জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ১৪৩৫ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন।

অর্থাৎ প্রতি ঘণ্টায় ৫৫ জনেরও বেশি। বুধবার নতুন করে আরও পাঁচজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সাম্প্রতিক সময়ে মাদারীপুর জেলায়ও ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু । গতকাল পর্যন্ত মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ছিল ১৩ জন। মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগ পরীক্ষা করার উপকরন ডেঙ্গু কীট ও আধুনিক যন্ত্রপাতি না থাকায় ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠাতে হচ্ছে আসে-পাশের জেলার মেডিকেল হাসপাতাল গুলোতে। এতে চরম বিপাকে পড়তে হচ্ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের।

এমতাবস্থায় ডেঙ্গু আক্রান্ত অসহায় ও চিকিৎসা গ্রহনে ব্যর্থ রোগীদের দায়িত্ব নিলেন, মাদারীপুর ২ আসনের সংসদ সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি শাজাহান খানের ছোটভাই হাফিজুর রহমান খান যাচ্চু ওরফে যাচ্চু (নানা)।

মাদারীপুর জেলা চেম্বার অফ কমার্স ইন্ডাস্ট্রিজ এর  সভাপতি, জনাব  হাফিজুর রহমান খান (যাচ্চু নানা) বলেন, মাদারীপুর  পৌরবাসি  যদি কেউ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয় তাহলে তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়া হবে।  যারা চিকিৎসা পরিচালনায় অপারগ ও সামর্থহীন তাদের জন্য  এই বিশেষ  ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১ই আগস্ট) দুপুর ১২ টায় জনাব হাফিজুর রহমান খান যাচ্চু (নানা) তার ভেরিফাইড ফেইসবুক পেজে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান এবং তিনি তার সাথে যোগাযোগ করার জন্য পাঁচটি মোবাইল নাম্বার ও দিয়েছেন।

জনাব হাফিজুর রহমান খান যাচ্চু (নানা) বলেন, মাদারীপুর পৌরবাসি কেউ ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হলে আক্রান্ত রোগী’র চিকিৎসার সকল দায়িত্ব গ্রহন করার ঘোষণা করছি। সকলেই জানেন, সারা দেশেই ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হওয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে, আমাদের মাদারীপুরে ও এই রোগ থেকে মুক্ত নয়। এই অবস্থায় মাদারীপুর পৌরসভায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত সকল মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছি আমি। কেউ ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হলে চিকিৎসার যেকোন ধরনের সহায়তার জন্য যোগাযোগ করুন এই
পাঁচটি মোবাইল নাম্বারেঃ
১. ০১৭৩১-৯১৫৮০৪২
২. ০১৯৫৬-১৭১৫১২ 
৩. ০১৭১৬-৫০১৯১৪

৪. ০১৯১৯-৮০০৪৬৫ 
৫. ০১৯১৬-১৮৩৯ ৭৪

শাহাদাত হোসেন জুয়েল,
মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *