মাত্র ৩৭ হাজার টাকায় রোবট সিনা বানালেন কু.বি শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মাত্র ৩৭ হাজার টাকা ব্যয়ে রোবট তৈরি করলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীরা। রোবটটির নাম দেওয়া হয়েছে সিনা। তিন শিক্ষার্থীর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় তৈরি হয়েছে রোবটটি। তাদের দলনেতা সনজিত মন্ডল। তিনি পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র। তার সহযোগী পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র সাঈয়েদুর রহমান ও আইসিটি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র জুয়েল নাথ।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স ক্লাবের সহযোগিতা এবং কুমিল্লা পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (বার্ড) অর্থায়নে রোবটটি তৈরি করা হয়। রোবটটি বর্তমানে কুমিল্লা বার্ডের লাইব্রেরিতে প্রদর্শন করা হচ্ছে। এটি দেখতে প্রতিদিনই ভিড় জমাচ্ছেন স্থানীয় শিক্ষার্থী ও লোকজনেরা।

দলনেতা সনজিত মন্ডল বলেন, স্কুলজীবন থেকেই রোবট বানানোর স্বপ্ন ছিল তার। কিন্তু সামর্থ্য ছিল না। টিউশনির টাকায় এটা-সেটা কিনে ছোট রোবট তৈরি করেন। তারপর বন্ধুদের দেখাতেন। এক সময় বিভিন্ন প্রদর্শনীতে অংশ নেন সনজিত। পুরস্কারও পান বেশ কয়েকবার। কুমিল্লার ভাড়া বাসায় নিজের মতো করে ল্যাব বানিয়েছেন তিনি। যদিও ল্যবের ড্রিল মেশিনের শব্দে বাড়িওয়ালা এসে বাসা ছাড়ার নোটিস দেন। তার গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামারী গ্রামে। তার পরিবার বর্তমানে ঢাকায় থাকে। বাবা রণজিত মন্ডল ঢাকায় ছোট চাকরি করেন আর মা লক্ষ্মী রানী বুটিকসের কাজ করেন। দুই ভাই এক বোনের পরিবার তার।

কুমিল্লায় ছয়টি টিউশনি করেন সনজিত। সেই আয় থেকে নিজে পড়েন। ভাইবোনদের পড়ার খরচেও সাহায্য করেন। রোবট তৈরিতে সহযোগিতা করায় তিনি কুবি, সায়েন্স ক্লাব, বার্ড কর্তৃপক্ষ ও দুই সহপাঠীকে ধন্যবাদ জানান। স্কুল শিক্ষার্থী জুনায়েদ ইসলাম সামি ও বিদিশা দাস বলেন, মানুষের মতো যন্ত্র দেখতে এসেছি। সে হাঁটতে পারে। কথা বলতে পারে। সে আমাদের জন্মদিনের শুভেচ্ছা গান শুনিয়েছে। সিনাকে দেখে আমরা খুব মজা পেয়েছি।

কুবির ভিসি প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীদের মাঝে অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। তারা মাত্র ৩৭ হাজার টাকায় রোবট বানিয়েছে।

কুমিল্লা বার্ডের মহাপরিচালক ড. এম মিজানুর রহমান বলেন, প্রযুক্তিতে সারা বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশও এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা অনুপ্রেরণা হিসেবে কুবি শিক্ষার্থীদের ছোট একটি বরাদ্দ দিয়েছিলাম। তারা সুন্দর একটি রোবট তৈরি করে দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *