এবার করোনা আক্রান্ত ফুটবলার দিবালা

১১ মার্চ ইতালিয়ান লিগের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে তাঁরই ক্লাব সতীর্থ দানিয়েলে রুগানি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই বান্ধবীকে নিয়ে তুরিনে কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। তখনই গুঞ্জন উঠেছিল, করোনায় আক্রান্ত পাওলো দিবালাও। কিন্তু আর্জেন্টিনা, চিলি ও ইতালির কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সে খবর মিথ্যা জানিয়ে দুদিন আগেই জুভেন্টাসের আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড বলেছিলেন, তিনি শুধুই পরীক্ষা করিয়েছেন, কয়েক দিন পর পরীক্ষার ফল হাতে আসবে।

আজ এসেছে সে পরীক্ষার ফল, তাতে করোনায় ‘পজিটিভ’ই হয়েছেন দিবালা। শুধু তিনিই নন, তাঁর বান্ধবী ওরিয়ানা সাবাতিনিও করোনায় আক্রান্ত। ইনস্টাগ্রামে আজ খবরটা দিয়েছেন দিবালা নিজেই, ‘হাই, সবাইকে জানাতে চাই যে মাত্রই কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল হাতে পেয়েছি। আমি ও ওরিয়ানা দুজনই পজিটিভ। সৌভাগ্যবশত, আমরা দুজনই শারীরিকভাবে একেবারে ঠিকঠাক আছি। আপনাদের বার্তার জন্য ধন্যবাদ।’

দিবালার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরটা অবশ্য বিবৃতিতে জানিয়েছে জুভেন্টাসও, ‘পাওলো দিবালা মেডিক্যাল টেস্ট করিয়েছেন, যেটাতে তাঁর শরীরে কোভিড-১৯ পাওয়া গেছে। ১১ মার্চ বুধবার থেকেই তিনি বাড়িতে স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টিনে আছেন। স্বাভাবিক নিয়ম মেনেই তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হবে। তিনি সুস্থ আছেন, কোনো লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না তাঁর শরীরে।’

এ নিয়ে জুভেন্টাসের তিনজন ফুটবলার করোনায় আক্রান্ত হলেন। ডিফেন্ডার দানিয়েলে রুগানিকে দিয়ে শুরু, এরপর আক্রান্ত হয়েছিলেন মিডফিল্ডার ব্লেইজ মাতুইদিও। তবে দলের খেলোয়াড়দের করোনা আক্রান্ত হওয়ার মধ্যেই জুভেন্টাস কেন গঞ্জালো হিগুয়েইন, মিরালেম পিয়ানিচ, সামি খেদিরা ও ডগলাস কস্তাকে ইতালি ছাড়ার অনুমতি দিয়েছে, সেটি নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এর মধ্যে কস্তাকে নিজ দেশ ব্রাজিলে যাওয়ার অনুমতি জুভেন্টাস দিয়েছে আজই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *